ঝারগাঁও সরকারি বিদ্যালয়ের ভবনে ফাটল ভয়ে রোদে পুড়ে ক্লাশ করতে হচ্ছে খোলা আকাশের নীচে

0
698

 

ঠাকুরগাঁও সদর প্রতিনিধি মো আবুল হাসান

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ঝাড়গাঁও সরকারি বিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম চলছে খোলা আকাশের নিচে দ্রুত ভবন নির্মান করা না হলে সামনের বর্ষায় শিক্ষার্থীরা চরম ভোগান্তিতে পড়বে বলে আশঙ্কা করছে স্থানীয়রা। বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা পর্ষদ জানায় এ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ১৯০১ সালে স্থাপিত হয় । কিন্তু নতুন ভবন নির্মান করা হয় ১৯৯৭ সালে। আর এটির উদ্বোধন করেন সাবেক পানি সম্পদ মন্ত্রী রমেশ চন্দ্র সেন। ২০ বছরের ব্যবধানে হঠাৎ করে বিদ্যালয় ভবনে ফাটল ও ছাদ ধসে পড়ায় বিস্ময় প্রকাশ

করেছে স্থানীয়রা । হাফিজুল ইসলাম নামে এক অভিভাবক অভিযোগ করে বলেন সরকারি কাজগুলি এভাবে দরিয়ায় যাচ্ছে এ সব কেউ দেখার নেই । বিদ্যালয়ের দপ্তরী মোঃ হানিফ জানায় এবছর ৪ এপ্রিল সকালে হঠাৎ করে ভবনের ছাদ ধ্বসে পড়ে এতে অল্পের জন্য প্রাণ রক্ষা পায় তারা । ৫ম শ্রেণীর ছাত্র ফজলে রাব্বী রিমন বলে আমাদের এখন রোদে পুড়ে ও বৃষ্টিতে ভিজে ক্লাশ করতে হচ্ছে একই সুরে কথা বলে আরেক শিক্ষার্থী ঋষিতা সে চতুর্থ শ্রেনীতে পড়ে এই বিদ্যালয়ে । বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি এরশাদুল হক জানান বার বার তাগাদা দেওয়ার পরও কর্তৃপক্ষ বিষয়টি আমলে নিচ্ছে না।আশাকরি কোমলমতি শিক্ষার্থীদের দূর্ভোগের কথা চিন্তা করে এ বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। সহকারি শিক্ষক ইসহাক আলী বলেন ভবন বিধ্বস্ত হওয়ার পর থেকে শিক্ষার্থী হ্রাস পেয়েছে অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের বিদ্যালয়ে পাঠাতে ভয় পাচ্ছেন । এ প্রসঙ্গে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ মাসুদ রানা বলেন ভবন পুন:নির্মানের জন্য সরকারি নির্মান সংস্থা এলজিইডিকে পত্র দেয়া হয়েছে তবে এই শিক্ষা কর্মকর্তা মন্তব্য করে বলেন নিমার্ণ কাজ সঠিক না হওয়ায় ভবন ধ্বসে যাচ্ছে।